বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০২:৫৩ অপরাহ্ন

দরকার এক লাখ, নিয়োগ ৩০ হাজার

হাসপাতালে শয‌্যা সংখ‌্যা, মেডিক‌্যাল কলেজ বা কাঠামোগত উন্নয়ন হলেও সেই হারে লোকবল বাড়েনি। বর্তমানে শুধু স্বাস্থ‌্য বিভাগেই এক লাখ লোকবল দরকার। এই সংকট কাটাতে এ বছর ৩০ হাজার লোকবল নিয়োগের উদ‌্যোগ নিয়েছে সরকার। এর মধ‌্যে নার্স নেওয়া হবে ১৫ হাজার।

বুধবার ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে (ডিআরইউ) হেলথ ক‌্যাম্পের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ তথ‌্য জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, ‘এ বছরই ৩০ হাজার লোকবল নিয়োগ দেয়া হবে স্বাস্থ্যখাতে। মামলা সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা থাকায় এতদিন প্রয়োজনীয় সংখ্যক লোকবল নিয়োগ দেয়া সম্ভব হয়নি। কিন্তু গতকাল হাইকোর্টের একটি রায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষে আসায় চলতি বছরই প্রয়োজনীয় সংখ্যক লোকবল নিয়োগের সব ধরনের উদ্যোগ নেয়া হবে।’

দেশের স্বাস্থ্য সেবাকে উন্নত ও আধুনিক করতে প্রয়োজনীয় জনবল নিয়োগ প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘দেশের হাসপাতালগুলোতে শয্যাসংখ্যা দ্বিগুণেরও বেশি বেড়েছে। অবকাঠামো উন্নয়ন হয়েছে, যন্ত্রপাতি বসানো হয়েছে কিন্তু যাদের মাধ্যমে সেবাগুলি মানুষ পাবে সেই লোকবল হাসপাতালে বৃদ্ধি পায়নি। স্বাস্থ্যসেবাকে উন্নত ও সহজলভ্য করতে শুধু স্বাস্থ্যসেবা খাতেই অন্তত এক লক্ষ চিকিৎসক, নার্স, মিডওয়াইফারি, ফার্মাসিস্টসহ প্রয়োজনীয় অন্যান্য লোকবল প্রয়োজন।’

ডিআরইউ সদস্য ও তাদের পরিবারের জন্য এ হেলথ ক্যাম্প আযোজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে সংবাদকর্মীদের নানা স্বাস্থ্য ঝুঁকি থাকা প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে অবগত করা হলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মিডিয়া কর্মীদের দিনভর নানা কাজে ব্যস্ত সময় পার করতে হয়। এতে রোগ-ব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও থাকে বেশি। একারণে ডিআরইউ সেন্টারে প্রয়োজনীয় জায়গা পেলে একটি সার্বক্ষণিক চিকিৎসা ব্যবস্থা ‘হেলথ কর্নার’ করতে সব ধরনের সহায়তা করা হবে।’

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, দেশে কোনো করোনা রোগী নেই এবং করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। পাশাপাশি, সামনেই মুজিব বর্ষ উদযাপন ও গত এক বছরের স্বাস্থ্যখাতের সাফল্য সমূহও তুলে ধরেন স্বাস্থ‌্যমন্ত্রী।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি রফিকুল ইসলাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন নাক, কান, গলা বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. মনিলাল আইচ লিটু, ডিআরইউ সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ চৌধুরী, এফবিসিসিআই এর পরিচালক রুহুল আমিন খন্দকার প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *