মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০১:৩৩ পূর্বাহ্ন

এ সময় সর্দি-কাশি ও জ্বর রোধে করণীয়

দেশবার্তা অনলাইন সংস্করণ
শীতের সময়ে খুব সাধারণ অসুখ হচ্ছে সর্দি-জ্বর ও কাশি। এ ছাড়া নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট বা অ্যাজমা, অ্যালার্জি, চোখ ওঠা, ডায়রিয়া, খুশকি, খোসপাঁচড়া বা চর্মরোগ প্রভৃতিরও প্রকোপ বেশি দেখা দেয়।

সর্দি-কাশি ও জ্বর

সর্দি-কাশি ও জ্বর শীতের সময়কার একটি সাধারণ রোগ। সর্দি-জ্বর দেহের শ্বাসনালির ভাইরাসজনিত এক ধরনের সংক্রমণ। ঋতু পরিবর্তনের সময় এ রোগ বেশি দেখা যায়। রোগ প্রতিরোধক্ষমতা যাদের কম, তাদের এ রোগ বেশি হয়।

হাঁচি-কাশির মাধ্যমে এসব রোগ একজনের শরীর থেকে অন্যজনের শরীরে ছড়ায়। সর্দি-জ্বর হলে প্রথমে নাকে ও গলায় অস্বস্তি লাগে, হাঁচি হয়, নাক দিয়ে অনবরত পানি ঝরতে থাকে।

নাক বন্ধও থাকতে পারে। মাথাব্যথা, মাথা ভারী বোধ হওয়া, শরীরে ব্যথা, জ্বর, গলাব্যথা প্রভৃতি উপসর্গও দেখা যায়।

সর্দি-কাশি ও জ্বর প্রতিরোধে করণীয়

১. সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হলে অন্যদের সঙ্গে, বিশেষ করে শিশুদের সঙ্গে মেলামেশায় সতর্কতা অবলম্বন করুন।

২. হাঁচি দেয়ার সময় বা নাকের পানি মুছতে রুমাল বা টিস্যু পেপার ব্যবহার করুন।

৩. রোগীর ব্যবহৃত রুমাল বা গামছা অন্যদের ব্যবহার করা থেকে বিরত রাখুন। যেখানে-সেখানে কফ, থুতু বা নাকের শ্লেষ্মা ফেলা যাবে না।

৪. স্বাস্থ্যকর, খোলামেলা ও শুষ্ক পরিবেশে বসবাস করতে হবে।

৫. প্রয়োজনমতো গরম কাপড় পরুন, বিশেষ করে তীব্র শীতের সময় কান ঢাকা টুপি এবং গলায় মাফলার ব্যবহার করুন।

৭. তাজা, পুষ্টিকর খাদ্যগ্রহণ ও পর্যাপ্ত পানি পান করুন, যা দেহকে সতেজ রাখবে ও রোগ প্রতিরোধে সহায়তা করবে।

৮. মাঝেমধ্যে হালকা গরম পানি দিয়ে গড়গড়া করুন বা হাত ধোয়ার অভ্যাস করুন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *