মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৪:০৯ অপরাহ্ন

ইউক্রেনের জালে ফ্রান্সের ৭ গোল

স্পোর্টস ডেস্ক,
জাতীয় দলে শুরুর একাদশে প্রথম সুযোগ পেয়েই দুর্দান্ত এক গোল করলেন এদুয়ার্দো কামাভিঙ্গা। জোড়া গোলে শততম ম্যাচ রাঙালেন অলিভিয়ে জিরুদ। জালের দেখা পেলেন আক্রমণভাগের অন্য দুই তারকা কিলিয়ান এমবাপে-অঁতোয়ান গ্রিজমানও। আক্রমণাত্মক ফুটবলে ইউক্রেনকে গুঁড়িয়ে নেশন্স লিগে মাঠে নামার প্রস্তুতি সারল ফ্রান্স।
অসংখ্য সুযোগ নষ্ট করে স্পেন-পর্তুগালের ড্র
৬ গোলের রোমাঞ্চে জার্মানিকে রুখে দিল তুরস্ক
মলডোভার জালে ইতালির গোল উৎসব
ফ্রান্সের জাতীয় স্টেডিয়ামে বুধবার রাতে ৭-১ গোলে জিতেছে দিদিয়ে দেশমের দল।
বল দখলের পাশাপাশি আক্রমণে আধিপত্য ধরে রেখে ফ্রান্স গোলের উদ্দেশে মোট ২৪টি শট নেয়, এর সাতটি গোল। বিপরীতে ঘর সামলাতে ব্যস্ত সময় পার করা ইউক্রেনের সাত শটের তিনটি ছিল লক্ষ্যে।তরুণ মিডফিল্ডার কামাভিঙ্গার দর্শনীয় গোলে ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যায় ফ্রান্স। নবম মিনিটে গোলমুখে জিরুদের হেড গোলরক্ষকের বুকে লেগে চলে যায় কামাভিঙ্গার কাছে। ঠাণ্ডা মাথায় শরীর ঘুরিয়ে অসাধারণ ওভারহেড কিকে দূরের পোস্ট দিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেন তিনি।
প্রতিপক্ষের রক্ষণে চাপ ধরে রেখে ২৪তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে ফ্রান্স। বায়ার্ন মিউনিখের মিডফিল্ডার তোলিসোর পাস ধরে প্রায় ২২ গজ দূর থেকে আচমকা জোরালো শটে বল জালে পাঠান চেলসির স্ট্রাইকার জিরুদ।
আন্তর্জাতিক ফুটবলে এটা তার ৪১তম গোল। জাতীয় দলের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে কিংবদন্তি মিশেল প্লাতিনির পাশে বসেন তিনি। ৫১ গোল নিয়ে শীর্ষে থিয়েরি অঁরি।
১০ মিনিট পর ব্যবধান আরও বাড়ান জিরুদ, ছাড়িয়ে যান প্লাতিনিকে। ডি-বক্সের বাইরে থেকে মিডফিল্ডার হুসেমের জোরালো শট ঠেকালেও বল হাতে রাখতে পারেননি গোলরক্ষক। ফাঁকায় বল পেয়ে হেডে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন জিরুদ।
৩৯তম মিনিটে নিজেদের ভুলে চতুর্থ গোল হজম করে সফরকারীরা। বাঁ দিক থেকে আসা ক্রস ঠেকাতে গিয়ে হেডে জালে পাঠান তাদের ডিফেন্ডার মিকোলেঙ্কো।
দ্বিতীয়ার্ধের অষ্টম মিনিটে বুলেট গতির দূরপাল্লার শটে ব্যবধান কমান মিডফিল্ডার ভিক্তর তিশানকভ। ৬৫তম মিনিটে ফের ব্যবধান বাড়িয়ে নেয় বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। ডি-বক্সের বাইরে এমবাপের সঙ্গে একবার বল দেওয়া নেওয়া করে জোরালো শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তোলিসো।

৮২তম মিনিটে গোল উৎসবে মাতেন দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে বদলি নামা এমবাপে। বেন ইয়েদেরের সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সে ঢুকে জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন পিএসজি তারকা।

ছয় মিনিট পর দূর থেকে বার্সেলোনা তারকা গ্রিজমানের শট প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে দিক পাল্টে জালে জড়ালে বিশাল জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ে ফ্রান্স।
উয়েফা নেশন্স লিগে আগামী রোববার পর্তুগালের বিপক্ষে মাঠে নামবে ফ্রান্স। প্রতিযোগিতাটিতে এর তিন দিন পর ঘরের মাঠে সুইডেনের বিপক্ষে খেলবে তারা।
নেশন্স লিগে আগামী শনিবার জার্মানির বিপক্ষে খেলবে ইউক্রেন। এর তিন দিন পর খেলবে স্পেনের বিপক্ষে। দুটি ম্যাচই ঘরের মাঠে খেলবে ইউক্রেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *